রাজশাহী, মঙ্গলবার ২০ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ৮ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

শিরোনাম
◈ রাজশাহীতে অজ্ঞাত ভাইরাসে দুই শিশুর মৃত্যু : আইইডিসিআরের পরিদর্শন, বাবা-মাকে ছাড়পত্র ◈ দিঘলিয়া থানায় ওপেন হাউজ ডে অনুষ্ঠিত ◈ হাতীবান্ধায় পরপর তিন দিনে পাশাপাশি তিনটি খড়ের গাদায় আগুন ◈ সিরাজগঞ্জে বিএসটিআইয়ের অভিযানে ফ্লাওয়ার মিলকে মামলা ও জরিমানা ◈ ট্রাকের পিছনের চাকায় পৃষ্ঠ হয়ে মোটরসাইকেল আরোহীর মৃত্যু ◈ তানোরে পুকুর খননের মাটিতে পাকা রাস্তা নষ্ট এলাকায় উওেজনা ◈ রাজশাহীর ডিবি পুলিশ কর্তৃক ২০০ গ্রাম হেরোইন-সহ গ্রেফতার: ৩ ◈ নওগাঁর ডলফিন এনজিও‘র মালিক আব্দুর রাজ্জাকসহ ০৬ জন কে যৌথ অভিযানে আটক ◈ আল-কোরআন হাফেজদের ব্যতিক্রমী বিদায় সংবর্ধনা ◈ হাতে ভাজা দেশি মুড়ি গ্রামীন জনপদ থেকে বিলুপ্তির পথে

রাজশাহী রেল স্টেশনে ‘টর্চার সেল’!

প্রকাশিত : 12:25 PM, 14 January 2022 Friday

বাংলার সকাল নিউজ ডেস্কঃ

বাইরে সাইনবোর্ড আছে। তাতে লেখা- ‘টিকিট সংগ্রহকারী কার্যালয়’। তবে সেটি এখন রীতিমতো হয়ে উঠেছে একটি ‘টর্চার সেল’। মাঝে মাঝেই এখানে ঘটছে যাত্রীদের শারীরীক ও মানসিকভাবে নির্যাতনের ঘটনা। রাজশাহী রেল স্টেশন হয়ে যাতায়াত করা যাত্রীদের কাছে এখন ‘আতঙ্কের ঘর’ এই টিকিট সংগ্রহকারী কার্যালয়। স্টেশনের ভেতর থেকে প্লাটফরমে ঢোকার আগে হাতের ডানপাশে পড়ে টিকিট সংগ্রহকারীদের (টিসি) এই কক্ষটি।

গত ৪ জানুয়ারি এই কক্ষেই ঢুকিয়ে বেধড়ক পেটানো হয় মো. রুবেল (২৪) নামের এক যাত্রীকে। তার অপরাধ, জাতীয় পরিচয়পত্রের সঙ্গে ট্রেনের টিকিটে দেওয়া নামের বানানের অমিল। টিসি মেহেদী হাসান রাসেল তাকে মারধরের আগে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজও করেন। পেশায় আনসার সদস্য রুবেলের বাড়ি চাঁপাইনবাবগঞ্জ হওয়ায় সে জেলা সম্পর্কে আপত্তিকর মন্তব্যও করেন। এ সব ঘটনার ভিডিও ছড়িয়ে পড়েছে সামাজিক মাধ্যমে।এ ঘটনায় তাৎক্ষণিকভাবে টিসি মেহেদী হাসান রাসেলকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। তবে একই সময় একই জায়গায় দায়িত্ব পালন করা রাসেলের স্ত্রী রেহেনাজ পারভীনের বিরুদ্ধে কোন ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি। যদিও এ ঘটনায় একটি তদন্ত কমিটি গঠন হয়েছে। কমিটির প্রতিবেদন পাবার পর পরবর্তী পদক্ষেপ গ্রহণের কথা বলছে পশ্চিমাঞ্চল রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ।অনুসন্ধানে জানা গেছে, স্টেশনে টিসিদের এই কক্ষটি এখন রীতিমতো টর্চার সেলে পরিণত হয়েছে। কারও কাছে টিকিট না থাকলে গেটে আটকে তাকে এই কক্ষে নিয়ে যান টিসিরা। তারপর চলতে থাকে জেরা। এক্ষেত্রে টার্গেট করা হয় নিম্নআয়ের শ্রমিক শ্রেণির মানুষকে। ওই কক্ষে তাদের নিয়ে বেশি টাকা জরিমানার ভয় দেখানো হয়। তারপর রশিদ ছাড়াই আদায় করা হয় জরিমানার টাকা। আর যতক্ষণ যাত্রী টাকা দিতে রাজি না হন ততক্ষণ তাকে জরিমানাসহ পুলিশের হাতে তুলে দেওয়ারও ভয় দেখানো হয়। এভাবে মানসিক নির্যাতন চলতে থাকে। প্রতিবাদ করলে করা হয় শারীরীক নির্যাতনও।টিসিদের পাশাপাশি যাত্রীদের এমন নির্যাতনে যোগ দেন রেলওয়ে নিরাপত্তা বাহিনী (আরএনবি) এবং আনসার বাহিনীর সদস্যরাও। কক্ষটিতে প্রতিদিন যে টাকা আদায় করা হয় তা সবাই মিলেই ভাগ-বাটোয়ারা করে নেন। স্টেশন ব্যবস্থাপক আবদুল করিমও প্রতিদিন এই টাকার একটা অংশ ভাগ পান বলে রেলওয়েরই একাধিক সূত্র জানিয়েছে।যাত্রী রুবেলকে নির্যাতনের পর রেলওয়ে পোষ্য সোসাইটির রাজশাহী জেলার সাধারণ সম্পাদক সুজাউদ্দিন ছোটন ওই কক্ষটির একটি ছবি ফেসবুকে পোস্ট করে লেখেন, ‘রাজশাহী রেল স্টেশনের এই কক্ষটি টিকিট সংগ্রহকারীদের জন্য। এখানে মূলত টিসিদের দাপ্তরিক কাজকর্ম করার কথা। কিন্তু এই কক্ষটি প্রধানত যাত্রীদের আটকিয়ে অর্থ হাতিয়ে নেওয়ার অবলম্বন হিসেবে পরিগণিত হয়েছে। চাহিদামত অর্থ না পেলে যাত্রীদের শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত করা হয় এখানে। এক কথায় বলা যায়, এটি টর্চার সেলে পরিণত হয়েছে।’

তিনি আরও লেখেন, ‘প্রতিদিন রাজশাহী রেলস্টেশনে আসা গড়ে শতাধিক যাত্রীকে এখানে ঢোকানো হয়। টিকিট যাচাই ছাড়াও দেহ তল্লাশি করা হয়। টিকিট না থাকলে অতিরিক্ত অর্থ আদায় করা হয় এবং আদায়কৃত অর্থ আত্মসাৎ করা হয়। অর্থ দিতে অপারগ হলে মারধর করা হয় এবং কখনো কখনো মোবাইল কেড়ে নেওয়া হয়। এদের হাতে রাজশাহী মেট্রোপলিটন পুলিশের একাধিক সদস্য, বিজিবি সদস্য ও আনসার সদস্যরা মারধরের শিকার হয়েছেন। এ ব্যাপারে থানায় একাধিক মামলা দায়ের করা হলেও অবস্থার উন্নয়ন হয়নি।’খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, এই কক্ষে ২০২০ সালের ডিসেম্বরে পুলিশের এক কনস্টেবলকে মারধর করা হয়। এ নিয়ে তিনি আরএনবির চার সদস্যের বিরুদ্ধে থানায় মামলা করেন। তদন্তে পুলিশ অভিযোগের প্রমাণ পাওয়ায় আসামিদের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র দাখিল করেছে। এর আগে আরএনবির সদস্যসহ দুই রেলকর্মীর যৌথ হামলায় আরেক পুলিশ সদস্য আহত হন। স্বামীকে রক্ষা করতে গিয়ে এ দুই রেলকর্মীর হাতে লাঞ্ছিত হন পুলিশ সদস্যের স্ত্রীও। ওই পুলিশ সদস্য এবং তার স্ত্রীকে প্লাটফরম থেকে টেনেহিঁচড়ে টিসিদের ওই কক্ষে নিয়ে যাওয়া হয়। এ নিয়ে ওই পুলিশ সদস্যও অভিযোগ করেন। এ কক্ষে হামলার শিকার হয়ে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের (বিজিবি) এক সদস্যও অভিযোগ করেছিলেন। তবে সাধারণ মানুষ হয়রানি ও নির্যাতনের শিকার হলেও আইনের আশ্রয় নেন না।তবে সর্বশেষ রুবেলকে মারধর এবং চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলাকে নিয়ে আপত্তিকর কথা বলায় অভিযুক্ত টিসি রাসেল ও তার স্ত্রী রেহেনাজ পারভীনের বিরুদ্ধে কী ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে তা জানাতে পশ্চিম রেলের মহাব্যবস্থাপক (জিএম) অসীম কুমার তালুকদারকে লিগ্যাল নোটিশ পাঠিয়েছেন আইনজীবী এমএমএস মেহেদী হাসান শাওন। ‘চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলাবাসীর পক্ষে’ তিনি এ লিগ্যাল নোটিশ পাঠিয়েছেন বলে নোটিশে উল্লেখ করেছেন। সাতদিনের মধ্যে লিগ্যাল নোটিশের জবাব দিতে বলা হয়েছে। নইলে অভিযুক্ত দুজনের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়ার হুঁশিয়ারি দিয়েছেন চাঁপাইনবাবগঞ্জের ওই আইনজীবী।এদিকে রুবেলকে পেটানোর ঘটনায় বুধবার দুই পক্ষের জবানবন্দী গ্রহণ করেছে তদন্ত কমিটি। তদন্তের অংশ হিসেবে বুধবার সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত তদন্ত কমিটির প্রধান পশ্চিমাঞ্চল রেলওয়ের ডেপুটি চিফ কমার্সিয়াল ম্যানেজার গৌতম কুমার কুণ্ডু তার দপ্তরে আলাদা আলাদাভাবে প্রত্যেকের বক্তব্য শোনেন। প্রথমেই ভুক্তভোগী যাত্রী মো. রুবেলের (২৪) বক্তব্য গ্রহণ করা হয়। এরপর একে একে অভিযুক্ত টিসি মেহেদী হাসান রাসেল, তার স্ত্রী ও টিসি রেহেনাজ পারভীনের বক্তব্য গ্রহণ করা হয়।

পরে ঘটনার সাক্ষী হিসেবে স্টেশন ব্যবস্থাপক আবদুল করিম, ট্রেন পরিচালক (গার্ড) রুবাইয়ৎ-ই-হাসান, টিসি আবু সাদাত ইমরান, কলবয় আবু জাহিদ রকি এবং রেলওয়ে নিরাপত্তা বাহিনীর (আরএনবি) সিপাহী সুমন রেজা, শাওন হোসেন, রনি মৈত্র ও বেলাল হোসেনের সাক্ষ্য গ্রহণ করা হয়। সকাল ১০টার দিকেই তাঁরা সবাই পশ্চিম রেলের সদর দপ্তরে হাজির হন।

© সোনালী সংবাদ

শেয়ার করে সঙ্গে থাকুন, আপনার অশুভ মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নয়। আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক বাংলার সকাল'কে জানাতে ই-মেইল করুন- banglarsakal24@gmail.com আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।

দৈনিক বাংলার সকাল'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

© ২০২৪ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। দৈনিক বাংলার সকাল | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বে-আইনি, ডেভোলপ ও ডিজাইন: DONET IT